school-bag

শিশুর জন্য চাই উপযুক্ত স্কুল ব্যাগ

নতুন বছর মানেই আমরা সবকিছুতে নতুনত্ব চাই। জানুয়ারি মাসে শিশুদের নতুন স্কুল। নতুন স্কুল মানে নতুন বই, নতুন পোশাক সঙ্গে নতুন ব্যাগ এবং নতুন উদ্দীপনা। এসময় আপনি নিশ্চয়ই সন্তানের জন্য নতুন স্কুল ব্যাগ কিনবেন? কিন্তু একটি প্রশ্ন দেখা দিতে পারে, যে ব্যাগটি আপনি কিনবেন তা আদরের সোনামনির জন্য উপযুক্ত? এ প্রশ্নটি সন্তানের সুস্বাস্থ্যের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ। কারণ, স্কুল ব্যাগের সঙ্গে শিশুর সুস্বাস্থ্যের গভীর সম্পর্ক রয়েছে। অর্থাৎ স্কুল ব্যাগটা যদি শিশুর বয়স এবং ওজনের তুলনায় খুব বেশি ভারী হয় তবে স্কুল জীবনে আনন্দের পরিবর্তে বিষাদ নেমে আসতে পারে। তাই এক্ষেত্রে বেখেয়ালি হওয়ার কোন সুযোগ নেই।

স্কুল জীবনে ব্যাগের বিড়ম্বনা বিষয়ে কবীর সুমনের একটি গান প্রণিধানযোগ্য- “স্কুলের ব্যাগটা বড্ড ভারী, আমরা কি আর বইতে পারি/ এও কি একটা শাস্তি নয়, কষ্ট হয়, কষ্ট হয়, আমার কষ্ট বুঝতে চাও, দোহাই পড়ার চাপ কমাও/ কষ্ট হয়, কষ্ট হয়।“ এই গানটি নেহাতই গান নয়; এটিই বাস্তবতা। আসুন জেনে নেয়া যাক কেমন ব্যাগ স্কুলগামী শিশুর জন্য উপযুক্ত।

স্কুল ব্যাগের পারফেক্ট ওজন

আমরা অনেকেই হয়তো জানি না যে শিশুর জন্য নির্বাতি স্কুল ব্যাগের ওজন কত হবে। ব্যাগের সঠিক ওজন খুবই গুরুত্বপুর্ণ। কারণ, যদি অতিরিক্ত ওজন হয় তবে শিশুর ঘাড়, পিঠ এবং মেরুদণ্ডের জন্য হুমকি হতে পারে। বাচ্চাদের বয়স, আকৃতি এবং ওজন অনুসারে ব্যাগের ওজন ভিন্ন হয়ে থাকে। জার্মানির স্বাস্থ্য পরিসংখ্যান বিষয়ক প্রতিষ্ঠান এজিআর একটি প্রতিবেদনে স্কুল ব্যাগের সঠিক ওজন বিষয়ে তথ্য প্রকাশ করেছিলেন। তারা বলেন, একটি স্কুল ব্যাগের সঠিক ওজন ১.৩ কেজি হওয়া উচিত। অন্যথ্যায় শিশুর জন্য বোঝা মনে হবে। তাই অভিভাবকদের অবশ্যই খেয়াল রাখতে হবে যে শিক্ষা হবে আনন্দের বোঝা নয়।

স্কুল মানেই বই, খাতা, কলম, পেন্সিল, পেন্সিল বক্স, জ্যামিতি বক্স, টিফিন বক্স, পানির বোতল, ছাতা আরও অনেক কিছু। এসব বহন করার জন্য অফলাইন এবং অনলাইন মার্কেটে নানা ধরনের ব্যাগ পাওয়া যায়।

ট্রলি ব্যাগ

ছবিঃ ট্রলি ব্যাগ

ট্রলি টাইপ স্কুল ব্যাগ অন্যান্য ব্যাগের তুলনায় জনপ্রিয়। কারণ, এ ব্যাগ বহন করা খুবই সহজ। এতে চাকা এবং ফোল্ডএবল হাতল রয়েছে। ফলে অনেক ভারী জিনিসও খুব সহজে বহন করা সম্ভব। তবে এক্ষেত্রে ব্যাগের হাতল এবং চাকার Stability খুবই গুরুত্বপূর্ণ। কেনার সময় অবশ্যই হাতল, চাকা, জিপার এবং কম্পার্টমেন্ট ভালোভাবে দেখে নিন।

ব্যাকপ্যাক

ছবিঃ ব্যাকপ্যাক

ব্যাকপ্যাক খুবই জনপ্রিয় এবং আরামদায়ক একটি স্কুল ব্যাগ। এ ধরনের ব্যাগ কাঁধে-পিঠে এবং হাতেও বহন করা যায়। এ ব্যাগের অনেকগুলো কম্পার্টমেন্ট থাকে। যেখানে  শিশুরা তাদের প্রয়োজনীয় প্রতিটি জিনিস আলাদা আলাদা রাখতে পারবে। অনেকভাবে বহনের সুবিধা থাকায় ইচ্ছে মতো বহন করা যাবে। অন্যান্য ব্যাগের মতো জিপার খুবই গুরুত্বপুর্ণ বিষয়। কারণ জিপার ভালো না হলে ব্যবহার বিপত্তি ঘটতে পারে। বাজারে নানা ব্র্যান্ডের এবং আকৃতির ব্যাকপ্যাক পাওয়া যায়। যেমন- শিশুদের কল্পিত নানা ধরনের কার্টুন আকৃতি (Ruz Dora explorer school bag, BEN 10 3D school backpack, Sweet Cat Cartoon Pattern Girl School Bag, Jungle Animals Soft Plush Children Backpack), প্রিন্টেড স্কুল ব্যাগ ইত্যাদি। অনলাইনে ঘরে বসেও স্কুল ব্যাগ কেনা যায়। এখনই কিনতে ক্লিক করতে পারেন।

অবশ্যই লক্ষ্য করুন

  • বয়স অনুযায়ী সাইজ এবং ওজন বুঝে নিন।
  • শিশুর পছন্দকে গুরুত্ব দিন।
  • ব্যাকপ্যাকের পিছনে নরম ফোমের লেয়ার আছে কিনা দেখে নিন।
  • জিপার বা চেইনের কোয়ালিটি দেখে নিন।
  • ওয়াটারপ্রুফ ব্যাগকে গুরুত্ব দিন।
  • মাল্টি কম্পার্টমেন্টযুক্ত ব্যাগ পছন্দের তালিকায় রাখুন।

অনেকের প্রশ্ন ভালো স্কুল ব্যাগ কোথায় পাওয়া যায়?

ঢাকা শহরসহ দেশের নানা জায়গায় স্কুল ব্যাগ পাওয়া যায়। দেশীয় বিভিন্ন কোম্পানির স্কুল ব্যাগের সঙ্গে বিদেশি ব্র্যান্ডের স্কুল ব্যাগও পাওয়া যায়। দেশের অনলাইন শপগুলোও স্কুল ব্যাগ বিক্রি করে থাকে। সেক্ষেত্রে আপনি ঘরে বসেই অর্ডার করতে পারবেন। পণ্য হাতে পেয়ে মূল্য পরিশোধও করতে পারবেন। পছন্দ না হলে ফেরৎ দেয়ার সুবিধাতো রয়েছেই। তবে এ ক্ষেত্রে দাম এবং মান নিয়ে অনেকেই সংশয় প্রকাশ করে থাকেন।

নিঃসংশয়ে বিদেশি ব্যান্ড যেমন- Skybags, Gear, KILLER, Safari, American Tourister, Aristocrat, Wildcraft, Fastrack, TOMMY HILFIGER, Benetton, Nike, Puma, Barbie, Disney, Frozen, Adidas, Chumbak, Woodland, Reebok, JanSport, US Polo Association, SKYBAG, Levi’s ইত্যাদি ব্যাগ কিনতে ভিজিট করতে পারেন দেশের নির্ভরযোগ্য অনলাইন শপ Jadroo Ecommorce। আজকে আর কলম চালাবো না। আপনার আদরের সন্তানের জন্য প্রয়োজনীয় নানা জিনিস সম্পর্কে জানতে এবং কিনতে আমাদের ব্লগ পড়ুন। অন্যকোন দিন কথা বলবো অন্য কোন বিষয় নিয়ে। অথবা আপনি যদি কোন বিষয় সম্পর্কে জানতে চান তবে কমেন্ট বক্সে জানাতে পারেন। আপনার এবং আপনার সন্তানের সুস্বাস্থ্য কামনা করে বিদায় নিচ্ছি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

twelve + 17 =