antorbas

অন্তর্বাস কেনার আগে মেয়েদের জানা জরুরি

মেয়ে-ছেলে সবাই সাজগোজ বিষয়ে খুবই মনযোগী। এমনকি পোশাক-আসাক নির্বাচনেও অনেকে খুবই খুঁতখুঁতে। কিন্তু অন্তর্বাস নির্বাচনে একেবারেই উদাসীন। অথচ অন্তর্বাস খুবই গুরুত্বপূর্ণ পরিধেয়। সুস্থ থাকার জন্য আন্ডারওয়ার বিশেষ ভূমিকা রাখে। আবার অন্তর্বাসের কারণে মেয়েদের বিব্রত হবার ঘটনা যে ঘটেনি তা কিন্তু নয়। পোশাকের রঙের সঙ্গে মিল রেখে অন্তর্বাস পরিধান করার পরও বাইরে থেকে ভালো করেই চিহ্নিত করা যায়। টপস, ফিটিং টি-শার্ট বা জিন্স প্যান্টের সঙ্গে কোন ব্রা পরলে বৃন্তের রেখা ফুটে উঠবে না বা কোন প্যান্টি পরলে সিমেরে রেখা ফুটে উঠবে না তা পরিধান করার পূর্বে খুব একটা বোঝা যায় না। তাই আগেই জেনে নিন আপনি কেমন ব্রা-প্যান্টি কিনবেন, কেন কিনবেন, কোথা থেকে কিনবেন এবং কিভাবে কিনবেন।

সিমলেস ব্রা-প্যান্টি

ছবি: সিমলেস ব্রা-প্যান্টি

ফিটিং টপ বা টি-শার্ট পরলে প্রথম সমস্যা হলো ব্রার রেখা বা লাইন পোশাকের উপর দিয়ে দৃশ্যমান হওয়া। এ জন্য পরতে পারেন সিমলেস ব্রা-প্যান্টি। এই অন্তর্বাসের বর্ডার এমনভাবে বানানো যা পোশাকের উপর থেকে বোঝা যাবে না। বডি হাগিং টপ বা কুর্তি, ককটেল ড্রেস, জিম ড্রেস এবং ফরমাল ড্রেসের সঙ্গেও এই ব্রা-প্যান্টি পরতে পারেন। বিকিনি, হিপস্টার বা গ্লানি প্যান্টি সবই এখন সিমলেস ডিজাইনে পাওয়া যাচ্ছে।

থং প্যান্টি

ছবি: থং-প্যান্টি

থং প্যান্টি মূলত ওয়ের্স্টান দেশগুলোতে জনপ্রিয়। এটি ভি সেইপ। পেছেনর দিকে যতই নিচের দিকে নামতে থাকে ততই সরু হয় এবং ফিতার আকৃতিতে পরিণত হয়। খেলাধূলা করার সময় এ প্যান্টি পরা যাবে না। কারণ, গোপনাঙ্গে আঘাত লাগা এবং ইনফেকশনের সম্ভাবনা থাকবে।

বিকিনি

ছবি: বিকিনি

বর্তমানে লো-ওয়েস্ট জিন্স পরার প্রচলন খুবই বেশি। এ ধরনের জিন্সের সঙ্গে বিকিনি পারফেক্ট হতে পারে। বিকিনির প্যান্টি লাইন খুবই সরু হবার কারণে প্যান্টের ওয়স্টলাইন দিয়ে বিকিনির বর্ডার দেখা যাবে না।

বয় শর্টস

ছবি: বয়-শর্টস

বয় শর্টস হচ্ছে ছোট প্যান্টের মতো যা হিপ এবং নাভির নিচ থেকে শুরু করে উড়ুর অনেকাংশ পর্যন্ত ঢেকে রাখে। বিভিন্ন ফেব্রিকের বয় শর্টস বাজারে পাওয়া যায়। আপনার পছন্দের ফেব্রিকের বয় শর্টস কিনে নিতে পারে।

হিপস্টার

ছবি: হিপস্টার

হিপস্টার একটি মর্ডান স্টাইল প্যান্টি। এটি খুবই আরামদায়ক। বিকিনি প্যান্টির চেয়ে বেশি চওড়া এই প্যান্টি নাভির ৬-৭ ইঞ্চি নিচে পরতে হয়। এটি আপনার নিতম্ব সমপূর্ণরূপে ঢেকে রাখবে।

ব্রাইডাল

ছবি: ব্রাইডাল

বিয়ের রাত মানেই নারী-পুরুষ সবার জন্য স্মরণীয় রাত। এ রাতকে স্মরণীয় করে রাখতে পরতে পারেন ব্রাইডাল ব্রা-প্যান্টি। এগুলো সাধারণত স্বচ্ছ ফেব্রিক দিয়ে তৈরি। আকর্ষণীয় করতে এতে ব্যবহার করা হয় বো অথবা সেনস্যুয়াল ফ্রিল।

ন্যুড ব্রা

ছবি: ন্যুড-ব্রা

ন্যুড ব্রা সাদা রঙের পাতলা পোশাকের নিচে পরার জন্য খুবই উপযোগী। হালকা প্যাডযুক্ত ন্যুড ব্রা পরতে পারেন। যাতে বৃন্তের রেখা অনুমান করার সম্ভাবনা থাকবে না।

অফ শোল্ডার ব্রা

ছবি: অফ-শোল্ডার-ব্রা

অনেক সময় পিঠের দিকে ব্লাউজের ভেতর দিয়ে ব্রার স্ট্রেইপ দেখা যায়। যার ফলে আপনি বিব্রত হবেন। এই বিব্রত হওয়া থেকে বাঁচতে ব্যবহার করুন অফ-শোল্ডার ব্রা।

স্পোর্ট ব্রা

ছবি: স্পোর্ট-ব্রা

আপনি কী নিয়মিত ব্যায়ম করেন? খেলাধূলা করেন? তবে আপনার জন্য অবশ্যই স্পোর্টস ব্রা। আপনার স্তনকে দৃঢ় রাখতে এই ব্রা কার্যকর ভূমিকা রাখবে।

সাপোর্ট ব্রা

ছবি: সাপোর্ট-ব্রা

আপনার বয়স কী ৩৫-৪০ পার হয়েছে? শরীরের সেপ নষ্ট হয়ে যাচ্ছে? তবে আপনি পরতে পারেন সাপোর্ট ব্রা। এতে ফোম ব্যবহার করার কারণে আপনার বয়স কম মনে হবে।

প্রেগনান্ট ব্রা

ছবি: প্রেগনান্ট

গর্ভাবস্থায় স্তনের নানা রকম পরিবর্তন আসে এবং ব্রেস্ট অনেক স্পর্শকাতর হয়ে যায়। মাঝে মাঝে তরল পড়তে থাকে। ওজন ভারী হয়ে যায়। এ অবস্থায় স্তনকে সঠিক সাপোর্ট দিতে হবে। গর্ভবতী মহিলাদের জন্য বিশেষ ব্রা এখন অনলাইনে পাওয়া যায়। সন্তান জন্ম দেবার পর ব্যবহার করুন নার্সিং ব্রা অথবা মেটারনিটি ব্রা।

ব্রার আরও কিছু উপকারিতা

ব্রা পরিধানের আরও বেশ কিছু উপকারিতা রয়েছে। চলুন জেনে নেই।

ব্রেস্ট সুরক্ষিত রাখতে ব্রা অবশ্যই পরা উচিত। সারাদিন দৌড় ঝাপসহ নানা ধরনের কাজ করতে হয়। ফলে অনিচ্ছাকৃত কিছু মুভমেন্ট হয়। নিচের দিকে ঝুলে থাকে অথবা অন্যের গায়ের সঙ্গে লেগে যাবার সম্ভাবনা থাকে। তাই স্তনকে সঠিক আকৃতি দিতে এবং শঙ্কাহীনভাবে চলাচলের জন্য ব্রা পরা উচিত।

ব্রা স্তনের ওজনকে ব্রেস্টলাইন এবং কাধের মধ্যে ভাগ করে দেয়। ব্রা প্রায় ৮০ ভাগ ওজন ধরে রাখে। ফলে ব্রেস্ট সরাসরি বেশি ওজন নেয় না। যার কারণে ব্রেস্ট ঝুলে পরে না, ব্যাথা করে না।

তবে সবসময় ব্রা পরে থাকলে কিছু সমস্যাও রয়েছে। যেমন- টাইট ব্রা সবসময় পরে থাকলে ব্যাথা হতে পারে। রক্ত চলাচলে ব্যাঘাত ঘটতে পারে। এমনকি ক্যান্সারও হতে পারে। তাই ঘুমানোর সময় ব্রা না পরাই ভালো। অতিরিক্ত টাইট ব্রা না পরাই ভালো।

কেন অনলাইনে অন্তর্বাস কিনবেন

অফলাইন মার্কেটে ব্রা-প্যান্টি কিনতে গেলে মেয়েদের অনেক বিব্রতকর পরিস্থিতির মধ্যে পরতে হয়। যেমন- লজ্জায় ভালোভাবে দেখা হয় না, ট্রায়ল দেয়ার সুবিধা না থাকায় মেজারমেন্টে রয়ে যায় সমস্যা। অনেক সময় ভালো আন্ডারওয়ার পাওয়া যায় না এবং দামও দিতে হয় বেশি।

তাই আপনার প্রয়োজনীয় গোপন জিনিস কিনতে ঘরে বসেই অর্ডার করুন Jadroo Online Shop থেকে। এখানে পাবেন বিদেশি মানসম্পন্ন নানা ডিজাইনের ব্রা-প্যান্টি-নাইনওয়ার। বাসায় বসে অর্ডার করুন বাসায় বসেই রিসিভ করুন। পছন্দ না হলে সঙ্গে সঙ্গে ফেরৎ দিন। তবে নাইন ড্রেস-ব্রা-প্যান্টি ব্যবহার করার পর ফেরৎ দিতে পারবেন না। তাই এ ব্যাপারে একটু সচেতন থাকতে হবে। । নারীদের জন্য Jadroo একটি নির্ভরযোগ্য অনলাইন ঠিকানা। যেখানে নারীদের প্রয়োজনীয় সব জিনিসই ন্যায্যমূল্যে পাওয়া যায়। বাংলাদেশের যেকোন যায়গা থেকে আপনি অর্ডার করতে পারেন স্টাইলিশ এবং আরামদায়ক ব্রা, প্যান্টি, বিকিনি, নাইট ড্রেস এবং বডি সেপার।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

5 × 5 =